ঢাকা, শুক্রবার, জুলাই ৩০ ২০২১,

এখন সময়: ০১:১১ মিঃ

বিএনপির মুখে দুর্নীতি বিরোধী বক্তব্য ভূতের মুখে রাম নাম

ডেস্ক নিউজ: | ০৬:১৩ মিঃ, জুন ১৭, ২০২১



দুর্নীতিতে পাঁচ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন এবং হাওয়া ভবনের প্রতিষ্ঠাতা বিএনপির মুখে দুর্নীতি বিরোধী বক্তব্য ভূতের মুখে রাম নাম বলে মন্তব্য করেছেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

গতকাল বুধবার (১৬ জুন) রাজধানীর সংসদ ভবন এলাকায় নিজের সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংকালে এ কথা বলেন তিনি। দুর্নীতির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শূন্য সহিষ্ণুতা নীতিতে অটল উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, মন্ত্রী, এমপি, ব্যবসায়ী, আমলা যারাই দুর্নীতির সাথে জড়িত থাকবে, তাদের বিরুদ্ধে সরকারের অবস্থান কঠোর। দুদক স্বাধীনভাবে তদন্তের মাধ্যমে কাজ করছে দাবি করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, দলীয় অনেক এমপিরও সাজা হয়েছে, কেউই রেহাই পাচ্ছে না এবং দলীয় পরিচয়ের অনেকেই দুর্নীতির অভিযোগে জেলে আছেন।

দুর্নীতি ও অপকর্মের সাথে জড়িত কোনো মনোনয়ন প্রত্যাশী আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে কোনোভাবেই মনোনয়ন পাবে না বলেও স্পষ্ট জানিয়ে দেন ওবায়দুল কাদের। দুদকের মতে তথ্য প্রমাণের অভাবে অনেক মামলা এগুচ্ছে না, কাজেই ঢালাও ভাবে অভিযোগ না করে এবং অন্ধকারে ঢিল না ছুঁড়ে সুস্পষ্ট তথ্য প্রমাণ দিতে বিএনপির প্রতি আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, দুর্নীতি করে যারা দেশ-বিদেশে অর্থপাচার করেছে বা সম্পদ গড়েছে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেখ হাসিনা সরকার গণমাধ্যমবান্ধব সরকার উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সাংবাদিক সমাজের সুখ দুঃখের সাথে তিনি জড়িয়ে আছেন। তিনি বলেন, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে গণমাধ্যমের ব্যাপক সম্প্রসারণ সরকারের উদারনীতির সাক্ষ্য বহন করে। করোনাকালে মিডিয়াকর্মীদের বন্ধু ও স্বজন হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই পাশে দাঁড়িয়েছেন জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, পেশাগত মর্যাদা ও আর্থিক সুরক্ষায় নবম ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়নে গুরুত্ব দিচ্ছে। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, গণমাধ্যমকর্মীদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তায় আইনগত সহায়তা দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

বিএনপি উদ্দেশ্যমূলক ও উসকানিমূলক বক্তব্য দিচ্ছে অভিযোগ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশের গণমাধ্যমকর্মীদের স্বার্থের বিপক্ষে কোনো কাজ শেখ হাসিনা সরকার করেনি, করবেও না। মন্ত্রী বলেন, বিএনপির শাসনামলে সাংবাদিক হত্যা ও নির্যাতনের রেকর্ড গড়েছিলো তারা। তাদের শাসনামলে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহীতার অভিযোগও এনেছিলো বিএনপি।গণমাধ্যমের সেই শত্রু ও নির্যাতনকারী বিএনপি আজ সাংবাদিকদের বন্ধু সেজেছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, তাদের মুখোশ সবার জানা, বিভিন্ন পেশায় কর্মরতদের উসকানি দিয়ে বিদ্যমান স্থিতিশীলতা নষ্ট করতে চায় বিএনপি। ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে কোনোভাবেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপপ্রয়োগ হবে না বলেও জানান।

মন্তব্যঃ সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ 4523 বার।





এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ আপডেট

নেপালের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন সাংবাদিকরা ক্ষমতাহীনদের ক্ষমতাবান করতে পারেন : তথ্যমন্ত্রী বাইডেন আগামী ৩০ আগস্ট ইউক্রেন নেতাকে স্বাগত জানাবেন বাড়ছে না শিথিলতার মেয়াদ, ২৩ জুলাই থেকেই কঠোর বিধি-নিষেধ শেখ হাসিনার সাহসী নেতৃত্বে জনগণ ভালো আছে : কাদের ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মোদি যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ফলমূল ও মিষ্টান্ন পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ঠিকানায় দেশকে পৌঁছাতে ঐক্যবদ্ধ হোন : তথ্যমন্ত্রী ঈদুল আজহার মর্মবাণী অন্তরে ধারণ করে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলার আহবান প্রধানমন্ত্রীর করোনার এ কঠিন সময়ে কোরবানির মর্মার্থ অনুধাবন করে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহবান রাষ্ট্রপতির সরকারের সাফল্য বিএনপির গায়ে জ্বালা বাড়ায় : কাদের টিকা গ্রহণকারীদের ‘বাহুবলী’ আখ্যা দিলেন মোদি তালেবান ও আফগান সরকারের মধ্যে যে সমঝোতা হলো সবাই যেন টিকা পায়, সে পদক্ষেপ নিয়েছি : প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর বিনা টাকায় টিকা দেওয়ার উদ্যোগ ঐতিহাসিক ঘটনা সাবেক সাংসদ আফাজ উদ্দিনের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক আওয়ামী লীগ ত্যাগের রাজনীতিতে বিশ্বাসী, ভোগের নয় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চল পরিদর্শন করলেন বেলজিয়ামের প্রধানমন্ত্রী বাশার আল-আসাদ চতুর্থবারের মতো সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন শামসুল আলম